সরকার এ বি সিদ্দিকীকে দিয়ে কাল্পনিক মামলা করিয়েছে: রিজভী

সরকারের মদদে জনৈক এবি সিদ্দিকী বিএনপির শীর্ষ নেতাদের নামে মামলা দায়ের করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সচিব রুহুল কবির রিজভী। বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকির কাল্পনিক অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু এবং আমি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী। সেখানে যে অভিযোগ করা হয়েছে সেটি কেবল সমাজে মামলাবাজ টাউটদের দ্বারাই সম্ভব।

তিনি বলেন, ‘এ বি সিদ্দিকী বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দসহ দেশের সম্মানিত নাগরিকদের বিরুদ্ধে প্রায়ই এধরনের আজগুবি মামলা দায়ের করে থাকে। এই ব্যক্তিটি একজন দেউলিয়া ও ছন্নছাড়া ব্যক্তি বলেই সরকার তাকে নির্দেশ দিয়ে এধরনের মামলাগুলো দায়ের করায়। শোনা যায়-এই সমস্ত মামলা করার কারণে অর্থ-বিত্ত-প্লটসহ তার অনেক প্রাপ্তি ঘটেছে। মামলাবাজ টাউটদের মতো সে দেশের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ থেকে শুরু করে সাংবাদিক, লেখকসহ মুক্তমনের মানুষদের বিরুদ্ধে বানোয়াট মামলা দিয়ে হয়রানি করার উদ্দেশ্য হলো সরকারের নেক নজরে থেকে আখের গুছিয়ে নেয়া।’

রিজভী বলেন, ‘এই মামলাবাজ মধ্যরাতের সরকারের আমলেই এই সমাজে এ বি সিদ্দিকীর মতো অসংখ্য মামলাবাজ গ্রাম্য দালাল-ফড়িয়াদের জন্ম হয়েছে। গণবিচ্ছিন্ন গণশত্রুদের দুঃশাসনের বাইপ্রোডাক্ট হচ্ছে এ বি সিদ্দিকরা। এরা বাংলাদেশের রাষ্ট্রসমাজে কুৎসিত, কদর্য পরিবেশ টেনে নিয়ে এসেছে। আমি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান, মহাসচিবসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে বানোয়াট, ভিত্তিহীন মামলা দায়েরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে এধরনের মনগড়া মামলা প্রত্যাহারের দাবি করছি।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিমুজ্জামান সেলিম, সহ-দফতর সম্পাদক মুহাম্মদ মনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments