আপনি জানেন কি! আওয়ামী লীগের কাছে এতো জরুরি কেন একজন যুবনেতা?

ক্ষমতা কার হাতে? ক্ষমতার উৎস কোথায়? উৎসটা কোথায় হলে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ উপেক্ষা করে পুলিশ প্রশাসন? নিশ্চয়ই প্রধানমন্ত্রীর প্যারালাল কোনো উৎস অথবা প্রধানমন্ত্রীর অন্যান্য শক্তির উৎসগুলোর অধিকাংশই তার দখলে। আওয়ামী লীগের কাছে এতো জরুরি কেন একজন যুবনেতা। অতীতে আমরা দেখেছি অনেক মন্ত্রী পদমর্যাদার মানুষকে নিমিষেই সরিয়ে দেয়া হয়েছে, জেলেও পাঠানো হয়েছে এই সরকারের আমলে। ওয়ান ইলেভেনের সময় জলিল সাহেবের মতো মানুষকে সরিয়ে দেয়া হয়েছিলো, রাজ্জাক সাহেবের মতো মানুষকে দল থেকে নিষ্ক্রিয় করে দেয়া হয়েছিলো, কিছুদিন আগে লতিফ সিদ্দিকীকে জেলেও পাঠানো হয়েছিলো, কিন্তু সম্রাটকে ধরতে এতো কষ্ট কেন? ব্যথাটা কোথায়? আমরা শহরবাসী দেশবাসী কোনোদিন সম্রাটের একটি সুখকর কথা শুনিনি, শুধু শুনেছি অত্যাচারের কথা, সম্রাট বাহিনী সব জায়গায় মানুষকে শুধুই কষ্ট দিয়েছে, নিজের বিশাল বিশাল ছবি রাস্তায় রাস্তায় টাঙিয়ে রেখে মানুষের মনস্তাত্ত্বিক চাপ তৈরি করেছে।
চারধার থেকে লুট করে দু’চারটা ভিক্ষুককে রাস্তায় মাংস-ভাত খাইয়ে দেয়া ছাড়া এই লোকের কাজটা কি? অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ কোনো একটি কাজ আছে যা আমরা সাধারণ মানুষ অনুধাবন করতে চাইছি না বা পারছি না, সেটা হচ্ছে সম্রাট সেই পাইপলাইন যেখান দিয়ে বড় বড় নেতাদের ঘরের লকারে টাকায় পূর্ণতা পেতো, সম্পদের প্রাচুর্য যেতো, তাই এই পাইপলাইন তারা নষ্ট করে দিতে চায় না। এই সম্রাটের শিক্ষাগত যোগ্যতা কি? বুদ্ধিবৃত্তিক মাপটা কি? দেশীয় উন্নয়নে এর অবস্থান কোথায়? সে কি আন্তর্জাতিকভাবে দেশের জন্য কোনো সম্মান বয়ে এনেছে? দেশের ভেতরে সে কি খুব জনপ্রিয় কেউ? শুধুই বিশাল এক বাহিনী তৈরি করে তাদের দিয়ে আওয়ামী সমাবেশে মিছিল-মিটিংয়ে প্রচুর লোক সাপ্লাই দিতে পারতো, কার্যত দল শুধু এটুকুই উপকৃত হয়েছে তার দ্বারা। মাঝে মধ্যে দলের বড় বড় প্রোগ্রামে বড় অঙ্কের টাকা দান করতো, কিন্তু তার এই টাকার উৎস কোথায়? তার ব্যবসা কোথায়? দল কি জিজ্ঞাসা করতো? আর এই টাকা তো অনেকেই দান করতো সেরকম অনেককে সরকার নিমিষে ধরে ফেলেছে, কিন্তু একে ধরতে পারে না কেন? এই যুবনেতা মানুষকে শুধু ভয় দেখাতে পারতো, বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কি দরকার আছে মানুষকে ভয় দেখানোর? দেশবাসী সেটা মনে করে না। শেখ হাসিনার জন্য মানুষের ভালোবাসাটুকুই যথেষ্ট। মানুষের মনে ভয়ের চাষ বঙ্গবন্ধুকন্যার প্রয়োজন নেই। তাহলে এই যুবনেতা এতো প্রয়োজনীয় কেন? আওয়ামী লীগের মধ্যে কে জনগণকে ভয় দেখিয়ে রাখতে চায়? কে জনগণকে জিম্মি করে রাখতে চায়? দলের মধ্যে কোন অংশটা চায়? তার নেতৃত্বে কে? অনেক প্রশ্ন। সবচেয়ে বড় প্রশ্ন কেউ কি শেখ হাসিনার অবস্থানকে চ্যালেঞ্জ করতে যাচ্ছে দলের ভেতর থেকে?

Facebook Comments