সরকার পতনে ‘বৃহত্তর আন্দোলনের’ ডাক ফখরুলের

দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন থেকে সরকার পতনের জন্য বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই কর্মসূচিতে পালিত হয়। এতে যোগ দিতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে দলে দলে নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের দিকে আসতে শুরু করেন। তাদের অনেকের হাতে ফেস্টুন প্ল্যাকার্ড দেখা যায়।
২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে যাওয়ার পর থেকে বন্দি জীবন কাটাচ্ছেন বিএনপি নেত্রী। সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে আদালতের পাশাপাশি রাজপথের আন্দোলনে মুক্ত করার ঘোষণা ছিল বিএনপির। কিন্তু কোনো চেষ্টাতেই সুফল মেলেনি। আর ইদানীং দলীয় প্রধানের মুক্তির দাবিতে কর্মসূচিও কমে এসেছে।
মানববন্ধনে নেতা-কর্মীরা ‘এক দফা এক দাবি, দেশনেত্রীর মুক্তি চাই দিতে হবে’ ‘জেলের তালা ভাঙব খালেদা জিয়াকে আনব’, ‘আমার নেত্রী আমার মা বন্দি থাকতে দেব না’ এসব শ্লোগান দেয়।
ফখরুল বলেন, ‘গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। সবাইকে সমুন্নত রাখতে হবে। সামনে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলে এই জালিম সরকারকে পরাজিত করতে হবে।’
‘আসুন আজকে নিজেদের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য, ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য, কথা বলার অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য এ সরকারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াই। তাদের সরিয়ে একটা জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।’
সরকার ‘ভোট ডাকাতি’ করে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে বলেও অভিযোগ করেন ফখরুল। বলেন, ‘তারা অন্যায়ভাবে দেশনেত্রীকে আটকে রেখেছে। কারণ একটাই, তিনি বাইরে থাকলে এসব অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলবেন। এ অবৈধ সরকার রাষ্ট্রের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে। আজকে বিচার বিভাগ, প্রশাসন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং মিডিয়াকে

Facebook Comments