কুকুর-বিড়ালের চাটা প্লেটে ভাত খাচ্ছে ঢাবি শিক্ষার্থীরা

প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) সাধারণ শিক্ষার্থীদের ভাত খেতে হয় কুকুর বিড়ালের চাটা প্লেটে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি হল ঘুরে বেশিরভাগ হলেই এমন দৃশ্য দেখা গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বেশিরভাগ হলের সিনিয়র নেতারা ভাত খাওয়ার পর ভাতের থালা না ধুয়ে ক্যান্টিন বা দোকানের খাবারের প্লেট রুমের বাইরে বারান্দায় রেখে দেয়। পরে এসব প্লেটে ক্ষুধার্ত কুকুর বা বিড়াল চাটাচাটি করে। যার কারণে কুকুর বা বিড়ালের মুখের লালা ভাতের প্লেটে লেগে থাকে। শুধু তাই নয়, এইসব লালা লাগানো প্লেট কোন রকম পরিষ্কার করে সাধারণ ছাত্রদের খেতে দেওয়া হয়। এসব অপরিচ্ছন্ন পরিবেশের খাবার খেয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এসব প্লেটে কুকুর-বিড়ালের পাশাপাশি কাকের বিচরণও লক্ষ্য করা যায়।

তবে বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ে নিত্য-নৈমিত্তিক হলেও এ বিষয়ে চোখে পড়ার মত তেমন কেন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি হল প্রশাসন গুলোকে। বিষয়টি ভুক্তভোগী বর্তমানে ছাত্রদের ঘৃণার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

এ বিষয়ে মহসীন হলের শিক্ষার্থী মুনসুর আলম দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, আমি প্রতিদিন দেখি সিনিয়র ভাইয়েরা রুমে খাবারের পর তাদের প্লেট বাইরে রেখে দেয়। এসব প্লেটে কুকুর, বিড়াল, কাক চাটাচাটি করতে আমি প্রতিদিন দেখি। পরে ক্যান্টিনে এসব প্লেটে আমাদের খেতে দেয় ক্যান্টিন কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) কমনরুম ও ক্যাফেটেরিয়া বিষয়ক সম্পাদক বি এম লিপি দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, বিষয়টা খুবই নোংরা ও স্পর্শকাতর। আমি এ বিষয়ে প্রতিটি হল সংসদের ভিপি-জিএসদের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নিব।

Facebook Comments