জাতীয়তাবাদী প্রযুক্তি দল আয়োজিত “অবরুদ্ধ গণতন্ত্র” বিপন্ন স্বাধীনতা ও আমাদের করণীয় শীর্ষক”

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী প্রযুক্তি দল আয়োজিত “অবরুদ্ধ গণতন্ত্র” বিপন্ন স্বাধীনতা ও আমাদের করণীয় শীর্ষক” আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
———————————————————
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী প্রযুক্তি দল কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক শুক্রবার “অবরুদ্ধ গণতন্ত্র, বিপন্ন স্বাধীনতা” ও আমাদের করণীয় শীর্ষক আলোচনা সভা- পল্টন দলীয় কার্যালয়য়ে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের-
জাতীয়তাবাদী প্রযুক্তি দল কেন্দ্রীয় কমিটির “সহ-সভাপতি” মোঃ জহিরুল ইসলাম মুকুল এর সভাপতিত্বে এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী প্রযুক্তি দল কেন্দ্রীয় কমিটির “সাধারণ সম্পাদক” শিহাব উদ্দিন সিয়াম এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপির নির্বাহী কমিটির “যুগ্ম মহাসচিব”, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির ” সভাপতি”,জনাব- হাবিব উন নবী খান সোহেল। এছাড়াও প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন- ঢাকা জেলা বিএনপির “সাংগঠনিক সম্পাদক” রাশেদুল আহসান রাশেদ”, সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের “ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক” আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী” বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- ছাত্র/শ্রমিক পরিষদের “আহবায়ক” এইচ. এম. মাহবুব, শাহবাগ থানা বিএনপির “সাংগঠনিক সম্পাদক”- সিরাজ উদ্দিন সিরাজ। এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ছত্রদলের সাবেক “সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক” সঞ্জয় দে রিপন, সাবেক ছাত্রনেতা- ইসমাইল চৌধুরী খোকা, শ্রমিকনেতা- তফাজ্জল হোসেন তোফা, তিতুমীর কলেজ ছাত্রদলের “যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক”- হামদে রাব্বি আকরাম, মিরপুর বাংলা কলেজ ছাত্রদলের “দপ্তর সম্পাদক”- আকরাম হোসেন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী প্রযুক্তি কেন্দ্রীয় সংসদের ” সাংগঠনিক সম্পাদক” সাইদুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের “আইন বিষয়ক সম্পাদক”- শাহদাত হসেন ভূইয়া, মানিকগঞ্জ জেলা প্রযুক্তি দলের ” সিনিঃ সহ সভাপতি” বুলবুল কবির প্রিন্স সহ প্রযুক্তি দলের সাংগঠনিক বিভিন্ন জেলার ও বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দগণ।

উক্ত অনুষ্ঠানে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন বেগবান করার লক্ষ্যে ও আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত থেকে দলীয় মিডিয়া হিসেবে অনলাইনে ও রাজপথে থাকার জন্য বিভিন্ন দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন- প্রধান অতিথি জনাব- হাবিব উন নবী খান সোহেল। তিনি বলেন হাসিনাকে বিদায় নিতে হবেই, অামাদের নিরাশ হওয়ার কিছু নেই, তবে সু সংগঠিত এবং শক্তিশালী হওয়া জরুলী।
বাঁধা অাসলে মোকাবেলা করতে হবে দৌড়ে পালানোর নাম সংগ্রাম নয়।অামাদের বড়বড় কথা না বলে রাজপথে প্রমান করতে হবে।

তিনি অারো বলেন বলেন_হাসিনা, কাদের,ইনু,মেনন, হাছান মাহমুদ’রা ইতিহাসের যে স্থানে চলে গিয়েছে কয়দিন পর মানুষ তাদের প্রতি থুথুও নিক্ষেপ করবে না।

এদিকে অালোচনা সভা সফল করায় অতিথিবৃন্দ এবং প্রযুক্তি দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন জাতীয়তাবাদী প্রযুক্তি দলের প্রতিষ্ঠাতা “সভাপতি” সাবেক ছাত্রনেতা জনাব- এম এ হাসান সুমন। অনুষ্টান শুরুর প্রাক্কালে তিনি লাইভ কনফারেন্সে সার্বিক তত্ত্বাবধান করেন।

প্রযুক্তি দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে অালোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেনঃ সহ সভাপতি- সামছুজ্জামন হেলাল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক -নজরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক-এম ডি শহিদুল ইসলাম রানা,যুগ্ম সম্পাদিকা-ফারজাহানারা অাক্তার মিতু,অাইভী চৌধুরী, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক-নাজমুল হোসেন সাগর,সিলেট বিভাগীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক -সাহেদ অাহমেদ,
প্রচার সম্পাদকঃঅালাউদ্দিন মুন্না, সহ প্রচার সম্পাদক-পারভেজ সরকার, সহ-দপ্তর সম্পাদক সামছুদোহা বাবু,

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা প্রযুক্তি দলের সাধারণ সম্পাদক- মোহাম্মদ ইলিয়াছ হোসেন,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক-অামিনুল ইসলাম।

কুমিল্লা জেলা প্রযুক্তি দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নুরনবী,
মানিকগঞ্জ জেলা প্রযুক্তি দলের পক্ষে -মারুফ মিয়া-সহ-সভাপতি” জহিরুল ইসলাম-যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, জাহাঙ্গীর আলম-সহ সাংগঠনিক সম্পাদক, রাজিব হাসান-যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক,

পটুয়াখালী জেলা প্রযুক্তি দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ রিপাত হোসেন মুসা,সাংগঠনিক সম্পাদক নিপুন খান সহ আরো অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। পাবনা জেলা প্রযুক্তি দলের প্রচার সম্পাদক মোঃখোকন সহ অনেকে।

Facebook Comments